মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
বাঁশখালীতে প্রাণিসম্পদ সপ্তাহ উপলক্ষে আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ বাঁশখালী বৈলছড়ির ঢালা সড়কের উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন বাঁশখালীতে মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্টিত বাঁশখালীতে আওয়ামীলীগের স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা বাঁশখালীতে মহান স্বাধীনতা দিবসে প্রশাসনের কুচকাওয়াজ ও সংবর্ধনা বাঁশখালীতে আওয়ামীলীগের জাতির জনকের জন্মদিনে আলোচনা বাঁশখালীতে জাতির জনকের জন্মদিনে প্রশাসনের আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ বাঁশখালীর বাহারচড়া রত্নপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরণ বাঁশখালী‌তে আন্তর্জা‌তিক দু‌র্যোগ প্রস্তু‌তি দিব‌সে র‌্যালী ও আ‌লোচনা বাঁশখালীতে আন্তর্জাতিক নারী দিবসে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

বিদ্যুৎ স্পর্শে দু,হাত হারানো বাঁশখালীর জন্নাতের পাশে প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৩০০ জন পড়েছেন

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার পুঁইছড়ি ইউনিয়নের রুস্তক কাটা এলাকার মৃত আবুল কালামের কন্যা জন্নাতুল বকেয়া বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটে দু,হাত হারিয়ে ফেলে। সে জন্নাতুল বকেয়া কে বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুজ্জামান চৌধুরী হুইল চেয়ার, নগদ অর্থ সহায়তা ও শীতবস্ত্র প্রদান করেছে গতকাল। বাঁশখালী উপজেলার পুঁইছড়ি ইউনিয়নের রুস্তক কাটা এলাকার মৃত আবুল কালামের চার কন্যার মধ্যে তৃতীয় ছিলেন জন্নাতুল বকেয়া। অভাবের সংসারের হাল ধরতে অষ্টম শ্রেনী পর্যন্ত লেখাপড়া করার পর বড় বোনের সাথে চট্টগ্রামের বাহির সিগন্যাল এলাকায় একটি গার্মেন্সে চাকুরি করে। ১৫ অক্টোবর ছুটির দিন,ছিল বাসায় হঠাৎ বাতাসসহ বৃষ্টি শুরু হলে বাসার ৫ তলা ভবনের জানালার পাশে যেতেই ঘটে বিপত্তি। সেখানে জানালার পাশেই ছিলো ১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক খুঁটি। হঠাৎ বৈদ্যুতিক খুঁটি ও জানালা বিদ্যুৎতায়িত হয়ে জান্নাতের দুটি হাতই ঝলসে যায় ৷ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে নিয়ে আসলে তার দুটি হাতই কেটে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। জন্নাতের দুঘর্টনা ও অসহাত্বের কথা মানবিক কর্মী কল্যাণ বড়–য়া উপজেলা প্রশাসনকে অবগত করে। দীর্ঘ সময় চিকিৎসা শেষে হাত বিহীন জন্নাতুল বকেয়া মা ফাতেমা বেগম ও অপর বোনের সহায়তা বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুজ্জামান চৌধুরী কাছে নিয়ে আসলে তাকে সহায়তায় হুইল চেয়ার, নগদ অর্থ সহায়তা ও শীতবস্ত্র প্রদান করা হয়। এছাড়া উপস্থিত আরো কয়জন উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা ও বাঁশখালী ইকোপার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিসুজ্জামান শেখ সহ কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তা নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করে।

হাত বিহীন পঙ্গু হয়ে যাওয়া জন্নাতুল বকেয়া মা ফাতেমা বেগম জানান, তার স্বামী বিগত কয়বছর আগে মৃত্যুবরন করে। দুমেয়ের বিয়ে হলে গেলে এ মেয়েটা গার্মেন্সে চাকুরি করে তাদের পরিবার চালাত। আর অপর ছোট মেয়েটা বর্তমানে নাপোড়া শেখেরখীল উচ্চ বিদ্যালয়ে লেখা পড়া করে। দীর্ঘদিন হাসপাতালে থেকে তাদের সহায় সম্বল সব শেষ হওয়াতে পুরাপুরি সুস্থ না হলেও বাড়িতে নিয়ে আসতে বাধ্য হয়েছে। তাই বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি জান্নাতুল বকেয়া, মা ফাতেমা বেগম স্বামী ঃ মৃত আবুল কালাম, পুঁইছড়ি রুস্তমকাটা, ৯নং ওয়ার্ড, যোগাযোগঃ ০১৮৬৭৬৩২৩২৫ এ ঠিকানায় সহযোগিতার আহবান জানান। এদিকে এ ঘটনা ফেইসবুকে জান্নাতের চিত্রটি দেখে বাঁশখালীর সন্তান ও মানবিক নেতা, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম নাগরিক কমিটি, ঢাকা এর সভাপতি ড. জমির সিকদার হাসপাতালে গিয়ে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করে বলে জানা যায় ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এই পোর্টালের কোনো লেখা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
kallyan