সোমবার, ১০ জুন ২০২৪, ০৪:০৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
বাঁশখালীতে প্রাণিসম্পদ সপ্তাহ উপলক্ষে আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ বাঁশখালী বৈলছড়ির ঢালা সড়কের উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন বাঁশখালীতে মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্টিত বাঁশখালীতে আওয়ামীলীগের স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা বাঁশখালীতে মহান স্বাধীনতা দিবসে প্রশাসনের কুচকাওয়াজ ও সংবর্ধনা বাঁশখালীতে আওয়ামীলীগের জাতির জনকের জন্মদিনে আলোচনা বাঁশখালীতে জাতির জনকের জন্মদিনে প্রশাসনের আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ বাঁশখালীর বাহারচড়া রত্নপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরণ বাঁশখালী‌তে আন্তর্জা‌তিক দু‌র্যোগ প্রস্তু‌তি দিব‌সে র‌্যালী ও আ‌লোচনা বাঁশখালীতে আন্তর্জাতিক নারী দিবসে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

প্রশাসনের কঠোর নিরাপত্তায়-বাঁশখালীর ৮৯ সার্বজনীন দূর্গাপূজা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১০০ জন পড়েছেন

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষে মন্ডপ গুলোতে সাজ সজ্জার কাজ চলছে । গত শনিবার মহালয়ার মধ্যে দিয়ে পূজার ঘনঘটা শুরু হলেও আগামী ২০ অক্টোবর শুক্রবার ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে পূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। পূজা শুরুর শেষ মুহূর্তে এসে বাঁশখালীর প্রতিমা শিল্পীদের কর্মব্যস্ততা। প্রতিমায় রং তুলি শেষ আঁচড় দিয়ে সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলার মাধ্যমে কর্মমূখর সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা। বাঁশখালী পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ জানান,এবার বাঁশখালীতে একটি পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়নে ১৬০ টি ঘটপুজাসহ ৮৯টি সার্বজনীন পূজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গা উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। তার মধ্যে বাঁশখালী পৌরসদরে ১৭ টি, সাধনপুর ইউনিয়নে ১৪ টি, কালীপুর ইউনিয়নে ১৫টি,বৈলছড়ী ইউনিয়নে ৬ টি, কাথরিয়া ইউনিয়নে ১ টি, চাম্বল ইউনিয়নে ১২ টি, নাপোড়া শেখেরখীল ইউনিয়নে ৩ টি, বাহারচড়া ইউনিয়নে ৪ টি, শীলকূপ ইউনিয়নে ৪ টি, সরল ইউনিয়নে ৪ টি ও পুকুরিয়া ইউনিয়নে ৭ টি মন্ডপে পূজা হবে। বাঁশখালীর সাধনপুরের ঐতিহ্যবাহী বানীগ্রাম সার্বজনীন শ্রী শ্রী জগন্নাথ ধাম দীর্ঘ ১৬ ফুটের দৃষ্টিনন্দন চট্টগ্রামের স্বনামধন্য মৃৎ শিল্পী অমল পাল দীর্ঘ ১৬ ফুটের দৃষ্টিনন্দন এ প্রতিমা নির্মান করেন। কালীপুর এলাকার প্রতিমা শিল্পী পিন্টু আচার্য্য জানান, এবার তিনি বাঁশখালী সহ বাঁশখালীর বাইরের বিভিন্ন পূজা মন্ডপের ৩০ টি প্রতিমা তৈরীর কাজ পেয়েছেন। তিনি ৭-৮ জন সহযোগীকে নিয়ে সমানতালে চালিয়েছেন প্রতিমা তৈরির কাজ। ইতিমধ্যে অর্ডার নেওয়া সবগুলো প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ করেছেন তারা। পাশাপাশি প্রতিমার গায়ের শেষ মুহূর্তের রং তুলির আঁচড়দেওয়াও শেষ করেছেন। তাদের হাতে তৈরি সবগুলো দুর্গা প্রতিমায় এবার আধুনিকতার ছোঁয়া রয়েছে বলেও জানিয়াছেন তিনি ।
বাঁশখালী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও পৌরসভার প্যানেল মেয়র প্রণব কুমার দাশ বলেন, এবার উপজেলায় ১টি পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়নে ১৬০ টি ঘট পূজোসহ ৮৯ টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে পুজোকে ঘিরে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিদের সাথে আমরা বিভিন্ন মতবিনিময় সভা করেছি। সভায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন । এবারের পূজায় বাঁশখালী পৌরসভা, নাপোড়া , চাম্বল ,কালীপুর ও সাধনপুর ইউনিয়নের কোলাহল সংঘ টি পূজা মন্ডপকে ঝুঁকিপূর্ণ ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে প্রশাসন। এর মধ্যে অতি ঝুঁকিপূর্ণ পশ্চিম চাম্বল বাংলা বাজার সার্বজনীন বুড়াকালী মন্দির, দক্ষিণ জলদী করুনাময়ী কালী মন্দির ও সাধনপুর কোলাহল সংঘ সার্বজনীন দুর্গোৎসব পূজা মন্ডপে আটজন আনসার, কম ঝকিপূর্ণ পূজা মন্ডপে ৬ জন আনসার ও সাধারণ পূজা মন্ডপে ৪ জন আনসার বাহিনী সার্বক্ষণিক নিয়োাজিত থাকবে বলে ও জানিয়েছেন তাঁরা। বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ কামাল উদ্দিন পিপিএম বলেন,শারদীয় দুর্গাপূজায় যে কোণ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। একটি মাত্র পূজামন্ডপে পর্যাপ্ত তিন স্থরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে এবং আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে দশমীর দিনে প্রতিমা বিসর্জন সুষ্টভাবে সম্পন্ন করা পর্যন্ত ২৪ ঘন্টার পুলিশের সদস্যদের দায়িত্বে থাকবে বলে তিনি জানান ।
বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেসমিন আক্তার জানান,হিন্দু সম্প্রদায়েরর বৃহত্তম ধর্মাবলম্বীর শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। পূজায় সব ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বিভিন্ন ধরনের দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পূজা চলাকালে প্রতিটি পূজা মন্ডপের নিরাপত্তা নিশ্চিতে আনসার সদস্যরা সার্বক্ষণিক নিয়োজিত থাকবে। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শারদীয় দুর্গা উৎসব শান্তিপূর্ণভাবে শেষ করতে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হবে।
বাঁশখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চৌধুরী মুহাম্মদ গালীব সাদলী বলেন, শারদীয় দুর্গোৎসব সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ ভাবে করার লক্ষে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে সর্বাতœক সহযোগিতা প্রদান করা হবে বলে তিনি জানান।
বাঁশখালীর সাংসদ আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এমপি বলেন,প্রতিবছরের ন্যায় এ বছর ও দূর্গাপূজা চলাকালীন সময়ে এলাকায় অবস্থান করে পূজারীতে সাথে একাতœত্ব হবো । সরকার ও আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে পুজামন্ডপে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করা হবে বলে তিনি জানান

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এই পোর্টালের কোনো লেখা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
kallyan